রোজ তার সাথে আমার মোলাকাত হয়

রোজ তার সাথে আমার মোলাকাত হয়
ভেতর বাহির সদর অন্দরে
কখনো বিশ্বাস আবার কখনো সংশয়
আমাদের মাঝে নিত্য বিনিময় হয়..।

আয়নায় আমার পাশে দাঁড়ায় সে
ঘুমোতে গেলে বালিশে মাথা রাখে একসাথে
প্রতি পদবিক্ষেপে অহেতুক বিদ্রোহ
তার সাথে আমার এভাবেই মোলাকাত হয়..।

রুপোর থালার মতো চকচকে ভোর
কিংবা নাক্ষত্রিক নিজঝুম রাতে
আমাদের অবসর মেলে..
তখন অন্ধকারে ছবি আঁকে সে
নিখুঁত টানে তৈরী করে আমার অবয়ব
নানা রং মুখোশ ভাব খেলা করে সেখানে..।

ভালোবাসা, ঘৃণা, করুণার পরিচিত বোধ পেরিয়ে
আমরা কুড়িয়ে ফিরি অন্যরকম এক বোধ
আধারের মানিব্যাগে জমা হয় সেসব
ঢাকার রাস্তায় তখন প্রহরীর হুইসেল
আর আমাদের মগজে তখন কলের গান
নানামাত্রিক সুখ দুখ শোধবোধ রোজকার রূপকথা..।

সে কে? যে আমার এতো কাছে?
যে আমাকে পড়তে পারে
আঁকতে পারে, ছুঁয়ে দিতে পারে
সময় অসময়?

সে আর আমি কিংবা আমরা,
আয়নায় দেখা প্রতিচ্ছবি?
বউঠাকুরাণীর হাঁটে হারিয়ে ফেলা
আমার দ্বৈতসত্ত্বা?
হয়তো.. না হলে কীভাবে সে,
আমার অক্ষরে নিজেকে প্রকাশ করার সাহস করে..।

================

## ছবি কৃতজ্ঞতা: Umanimo

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।