কোন এক বিষন্ন সন্ধ্যায়………

সন্ধ্যা নামছে ধীর পায়ে।
পাখিরা ফিরছে আপন নীড়ে। গ্রামের পথে গরু নিয়ে বাড়ি ফিরছে রাখাল ছেলেটা।
দূর দিগন্তে রক্তিম আভা ছড়িয়ে অস্ত যাচ্ছে আমাদের অতিচেনা প্রতিদিনের সূর্য।
অসংখ্য ঝিঁ-ঝিঁ ঝিম ধরানো স্বরে একটানা ডেকে যাচ্ছে।
বাড়ি ফিরব বলে উঠে দাড়াই। কিন্তু আমার আর বাড়ি ফেরা হয়ে উঠে না।
পৃথিবীটা এমন কেন? স্বপ্ন আর বাস্তবের এতটা বিরোধ কেন?
তারপরও প্রতিটি মানুষের স্বপ্ন থাকে সুন্দর শান্তিপূর্ন একটি গৃহের
। অথচ শান্তির সেই সুখপাখিটার সন্ধান আজও জানা হয়নি।
নিঃশব্দ পদবিক্ষেপে অন্ধকার নামছে দশদিক ঢেকে দিকে। সময় গড়াতে থাকে কালের পরিক্রমায়।
সেই সাথে আমিও হাটতে থাকি ক্লান্ত পায়ে।
বিষন্ন সেই সন্ধ্যায়………..।

চারটে দেয়াল মানেই নয়তো ঘর
আপন ঘরেও অনেক মানুষ পর
কখন কিসের টানে
মানুষ পায় যে খুঁজে
বেঁচে থাকার মানে
ঝাপসা চোখে দেখার এই শহর।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।