বেহুলার ভাসান কিংবা পরাবাস্তবতার ভাবনামেঘ..

নারীর বুকের নদীতে মৃত্যুর মহোৎসব !
কখনো নারী সন্ধ্যার শঙ্খনাদ ,
প্রেমিক জনে তার সব …
তাই সে প্রেমিক !
আগুন ,তৃষ্ণা ,কলা ,সর্বস্বান্তে ,যজ্ঞের মন্ত্রে
বোধিদ্রুমে সে প্রেমিক !!

উদ্ধৃতি
(প্রেমিক
ছায়েদা আলী)

==============

একা

 

বড়ো সাঁধ জাগে..
হৃদয়ের গহীন অন্তপুরে..
এই সব সবুজ প্রেমিকের মতো করিয়া
..মানবজন্মের
স-ব স-ব কিছু জানিয়া লইতে একদিন!

গাঙুরের জলে বেহুলার ভাসান
..চাঁদ সওদাগর..
ধানসিঁড়ি নদী
..বহুপূর্ব জ্যোৎস্নার হলদেটে আলো..
তার জন্য তার,
কিংবা তোমার জন্য উহার..
আমার জন্য নয়
কোন কোমল মায়াবী নারীর অধীর অপেক্ষার পল..!

হয়তো ইহাই আমার দৃষ্টিপথে দাঁড় করাইয়াছে…
অনিরুদ্ধ আকাশ..আমার অদ্ভূত দৃষ্টিহীনতার খেয়ালী পাগলামী..!

আমায় বসিয়ে রাখে…নৈঃশব্দের তেমাথায়।

নি্ওনের আলোয় ট্রামলাইন ধরে
হেঁটে যায়..বনলতা সেন..জীবনবাবুর..হাতে হাত রেখে!

সুনীলের সাথে হঠাৎ দেখা হয়ে যেতে থাকে নীরার!!!
ভালোবাসতে হলে..প্রেমিক হতে হলে..সর্বজ্ঞও হতে হয় বোধহয়..!!!

 

জানিনা। কিচ্ছু জানি না। শুধু জানি, আমি এক অনাহুত আগন্তুক এই পৃথিবীতে..। আমার আমিকে অহর্ণীশ খুঁজে ফিরছি চারপাশ থেকে।বাইরে এখন ঝুম বৃষ্টি হচ্ছে। একটানা রুম ঝুম..রুম ঝুম..রুম ঝুম..।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।