আপনি আসছেন তো?

***এই পোস্টের ভূমিকা হিসেবে নীচের তীর চিহ্ন ছবিটিতে ক্লিক করে, এই পার্টির দাওয়াত পোস্টটি পড়ে নিন। তাহলে খুব সহজেই ব্যাপারটি বুঝতে পারবেন।

arrow-down-circle

সবকিছু ঠিক থাকলে, কিছুক্ষণ পর শুরু হচ্ছে একটি ভিন্ন রকমের ব্লগীয় পার্টি। ভিন্নতার কথা বলছি এই জন্য যে, এই পার্টির আয়োজন করা হচ্ছে আমার একমাত্র ভাগনীর জন্মদিন উদযাপন উপলক্ষে। এর আগে, কোন অনুষ্ঠান উদযাপনের জন্য ব্লগীয় পার্টি আমার চোখে পড়েনি।

আমার বড়ো আপি বহুদূরের এক ঝাঁ-চকচকে দেশের বাসিন্দা। যেখানে জীবনযাত্রার মান অসম্ভব রকমের ভালো । যেখানে উন্নতির পাগলা ঘোড়াটা আকাশ ছোঁয়ার চেষ্টায় রত থাকে অহর্ণীশ। সবকিছুই ঠিক আছে। কিন্তু, সেখানের জীবন মানবিক নয়। যান্ত্রিকতার চরম মাত্রার বহিঃপ্রকাশে ক্লান্ত সেদেশের মানুষেরা।

আমার আপিটাও জীবন বয়ে বেড়াচ্ছে ভীষণ রিক্ততায়। গাড়ি বাড়ি সবই আছে। তারপরও, কিছুই নেই। সুবিশাল শূণ্যতার মাঝে কেবলি ভেসে থাকা।

আমার আপিটাকে আমি বড়ো বেশি ভালোবাসি। যাঁর জন্য স্বার্থপর এই আমি, কখনোই কিছু করতে না পারার অসম্ভব কষ্ট বয়ে বেড়াই সারাক্ষণ। যাঁর কাছে আমাদের নানা রঙের এই পৃথিবীর সব রঙগুলো শুধুই ধূসর। কোন স্বপ্ন নেই। ভালোবাসা নেই। প্রিয় মানুষের জন্য দিনশেষে কোন অপেক্ষা নেই। কিছুই নেই। শুধুই দ্রুতগতির মেইল ট্রেনের মতো করে জীবনের অবিশ্রান্ত ছুটে চলা। আমি যদি তাঁর চলমান বর্তমান এ্যালবামে রংধনু রঙ এনে সব রঙিন করে দিতে পারতাম!!

আপিটার একমাত্র মেয়ের আজ জন্মদিন। ছোট্ট পরিটা আপির পৃথিবী। আপি এখন আমার থেকে অনেক দূরে। আমি চাইলেও তার সাথে যোগাযোগ করতে পারছি না। খুব কষ্ট হচ্ছে। আচ্ছা, আপি কি আমার এই কষ্টটা বুঝতে পারে? আপিটা হয়তো কখনোই জানতে পারবে না, বহুদূরের এই ভাইটা তাকে ঠিক কতোটা ভালোবাসে, মিস করে! চোখে জল এলে পৃথিবীটা কেমন অন্যরকম লাগে…

জানিনা, আপি এই পার্টিপোস্টগুলো দেখতে পাবে কি না। তবুও বলছি, আপি আমি তোমাদের খুব মিস করি…।

=============================

সবার আগমন প্রত্যাশায় রইলাম। আমার ব্রডব্যান্ড কানেকশান মৃতপ্রায়। তাই, মোবাইল ইন্টারনেট চালাচ্ছি। একটু কষ্ট হবে এ্যরেঞ্জ করতে। তবুও, চেষ্টা করবো। আপনাদের সবার সহযোগীতা একান্ত কাম্য।

ব্লগিং হোক জীবনের জন্য।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।