জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

নিজস্বতার দুর্ভিক্ষ ও সঙ্গদোষে একটি অভিশপ্ত রোবটের জন্ম

১ম জনঃ , দেখ দেখ! মালটা কড়া মাম্মা! ২য় জনঃ নজর দিবি না। এইটা তোর ভাবী হয়। ১ম জনঃ আইচ্ছা মামা। তোর নেক্সট এর অপেক্ষায় বইলাম। তহন কিন্তু আমার সম্পদ হইবো। ৩য় জনঃ এ্যাহ! আইছে! এইগুলা তোদের লেইগা না। বয়ফ্রেন্ড আছে। শালার***। ****বয়ফ্রেন্ডের মজাই মাম্মা..।” সংলাপগুলো দেশের সর্বোচ্চ পর্যায়ে শিক্ষা.

রোজকার কড়চা

আমার জন্য সবার কষ্ট হচ্ছে। প্রিয়তার জন্য আমি মোটেও পারফেক্ট নই। আমি আসলে কারো জীবনেই সাযুজ্যপূর্ণ নই। কিছু মানুষকে হয়তো এভাবেই বেঁচে থাকতে হয়..। জানি না…। কিচ্ছু জানতে ইচ্ছা করছে না। চলে যেতে ইচ্ছা করছে দূরে কোথাও। যেখানে কেউ কারো জন্য নয়…। শুধুই সুমহান মৌনতার অপেক্ষা…

রোজকার কড়চা

রাস্তার পাশে জীর্ণ ভ্যানগাড়ি কিংবা স্টলে আয়োজিত ফুডকোর্টগুলো না থাকলে, আমার মতো ছাপোশা গুরুতর মধ্যবিত্তদের অবস্থা কী হতো, কে জানে…